প্রফেশনাল ক্ষেত্রে সফট স্কিল
May 6, 2020
ইমোশোনাল ইন্টেলিজেন্সের গুরুত্ব ও প্রয়োজনীয়তা
May 10, 2020
Spread the love

 

“ইমোশনাল ইন্টেলিজেন্স বা আবেগীয় বুদ্ধিমত্তা” হচ্ছে এমন আমাদের মনের মধ্যে তৈরি হওয়া ইমোশন যেগুলো আমাদের আসে পাশের পরিস্থিতি, আমরা কি দেখছি, কি শুনছি বা কেমন বোধ করছি ইত্যাদি বিভিন্ন কারনে তৈরি হয়। এই ইমোশন গুলোই হয়তো পরবর্তী সময়ে আমাদের ব্যবহারে কিছু পরিবর্তন আনছে এবং এই পরিবর্তিত ইমোশনে নিয়ন্ত্রন রেখে সামনে দিকে এগিয়ে চলা।

ইমোশনাল ইন্টেলিজেন্স বুঝতে গেলে আগে নিজেকে বুঝতে হবে। এক কথায় ইমোশনাল ইন্টেলিজেন্স হচ্ছে নিজের ইমোশন গুলোকে বোঝা, পাশাপাশি অন্যের ইমোশন গুলোও বোঝা। ইমোশনাল ইন্টেলিজেন্স বলে, আগে নিজেকে খুশি রাখতে হবে আমাদের প্রোডাক্টিভিটি বাড়ানোর জন্য।

ইমোশনাল ইন্টেলিজেন্সে মূলত চার টি সচেতনতার গুরুত্ব বেশি দেওয়া হয়। যেমনঃ-

১। নিজেকে বোঝা বা আত্ম-সচেতনতা

২। অন্যদেরকে বা সমাজকে বোঝা

৩। নিজেকে নিয়ন্ত্রন করা বা ম্যানেজ করা

৪। সম্পর্ক বা সমাজকে ম্যানেজ করা

আমাদের নিজেকে আগে –সচেতন করতে হবে এবং নিজেক্ব –সচেতন করার পাশাপাশি আমাদের চারপাশে যারা রয়েছে তাদেরকেও সচেতন করতে হবে। আমাদের ব্যবহার অন্য একজন ব্যাক্তির উপর কীভাবে প্রভাব ফেলছে টা আমাদের বুঝতে হবে এবং তাদের উপর কীভাবে প্রভাবে ফেলছে টা নিয়ন্ত্রন করাই হচ্ছে আবেগ নিয়ন্ত্রন করা।

 

 

Comments are closed.